রেফারিকে গালি দেওয়ার অপরাধে চার ম্যাচ নিষিদ্ধ মেসি।

0
72

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে রেফারিকে গালি দেওয়ার অপরাধে চার ম্যাচ নিষিদ্ধ হয়েছেন আর্জেন্টাইন ফুটবল তারকা লিওনেল মেসি। মেসির এই শাস্তির বিরুদ্ধে সরব হয়েছে ফুটবলবিশ্ব। তবে নিজের শাস্তির বিষয়ে এত দিন নীরব থাকতে দেখা গেছে এই তারকাকে। অবশেষে মুখ খুললেন তিনি। জানালেন, যে অপরাধে তাঁকে শাস্তি দেওয়া হয়েছে, আদতে এমন কোনো কাজই নাকি তিনি করেননি! লাইন্সম্যানকে নাকি গালি দেননি মেসি, শুধু তাঁর নিজের হতাশা প্রকাশ করেছেন। কথাগুলো বলেছেন খোদ মেসি!

আর্জেন্টাইন দৈনিক ‘লা ন্যাশিওন’কে দেওয়া বক্তব্যে মেসি বলেন, ‘আমি সহকারী রেফারিকে কিছু বলিনি, আমি তো কেবল নিজের সঙ্গে কথা বলছিলাম।’ অথচ রেফারিকে অশালীন গালি দেওয়ার অপরাধে মেসিকে চার ম্যাচ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। অবশ্য মেসির বিরুদ্ধে নেওয়া সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করার আবেদন জানাচ্ছে আর্জেন্টিনা ফুটবল সংস্থা।

জানা গেছে, মেসির শাস্তি কমাতে সম্ভব সব চেষ্টাই করবে দেশটির ফুটবল সংস্থাটি। প্রয়োজনে আইনি লড়াইয়েও নামবে দেশটি। এএফএর জাতীয় দল কমিটির প্রধান মার্সেলো তিনেল্লি বলেন, ‘মেসির সঙ্গে অন্যায় করা হয়েছে। আমরা এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করব। আইনজীবী ও বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কথা বলছি। এত বড় শাস্তি পাওয়াটা অযৌক্তিক।’

এর আগে চিলির বিপক্ষে ম্যাচে লাইন্সম্যানের সঙ্গে অশোভন আচরণ করায় চার ম্যাচ নিষিদ্ধ হন মেসি। এর সঙ্গে ১০ হাজার সুইস ফ্রাঁ জরিমানাও করা হয়েছে বার্সেলোনার এই তারকা ফুটবলারকে। ম্যাচে বিতর্কিত এক সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ম্যাচ অফিশিয়ালের সঙ্গে মৌখিক বিতর্কে জাড়িয়ে পড়েন মেসি। এমনকি ম্যাচ শেষে ম্যাচ রেফারির সঙ্গে হাত মেলাতেও অস্বীকৃতি জানান আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। এর ফলেই কনমেবল গভর্নিংবডির ডিসিপ্লিনারি কমিটি মেসির এই আচরণের জন্য শাস্তি নির্ধারণ করে।

মেসিকে ছাড়াই পরের ম্যাচে বলিভিয়ার বিপক্ষে ২-০ গোলে হেরে যায় আর্জেন্টিনা।

Comments

comments

SHARE