ফরিদপুরে চরভদ্রাসন উপজেলার গাজীরটেক ইউনিয়নের চর হোসেনপুর গ্রামে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে জনতার হাতে গণপিটুনিতে হেলাল খাঁ (৩০)রলাশ শনিবার সকালে জাকেরের সুরার ভাঙ্গার মাথায় ভাসতে দেখা গেছে।

0
628

কানিজ ফাতেমা আদুরি চরভদ্রাসন প্রতিনিধি: ফারিদ পুর

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নিহত হেলালের লাশ নদীর তীরেএক কাঠার পাঁশে ভাসমান অবস্থায় আছে। স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায় নিহতের বাবা মোসলেম ও মা শুকুরী বেগম এক বছর আগে জাকেরের সুরার কলকুঠিতে বসবাস করত। চরভদ্রাসন থানা হতে শুক্রবার রাত আটটায় মরদেহ গ্রহণের পর দাফনের জন্য ঐস্থানের ভাঙ্গার মাথায় নিয়ে যায়। কিন্তু কারও সহযোগিতা না পাওয়ায় মোসলেম বলে আমার ছেলের যেহেতু দাফনের জায়গা হলো নাতাহলে নদীতে ফেলে দাও। সে সময় এলাকার মাতুব্বর শ্রেণীর লোকেরা নদীতে ফেলে দেয়। তাদের নাম জানতে চাইলেতারা নাম জানাতে গরিমসি করে।মুঠো ফোনে হেলালের মায়েরর(মোসলেম খার দ্বিতীয়স্ত্রী) সাথে কথা হলে তিনি জানান আমরা লাশ নিয়ে গেলে কেউ লাশ গন্ধ বলে কেউ নামাতে দেয়নি পরে কারা ফেলেদিলো আমরা জানিনা। আমাদের কোন হুস ছিল না। চরভদ্রসন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রামপ্রসাদ ভক্তের সাথে কথা হলে তিনি বিষয়টি সম্পর্কে অবগত নয় বলে জানান। তিনি এও জানান খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।পরে চরভদ্রাস থানার এস আই আব্দুর রব,এস আই সাইদুল এর উপস্থিতিতে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ওবায়দুল বারী দিপু খাঁনের সহযোগিতায় লাশটি আরজখার ডাঙ্গী গ্রামের মেছের বেপারীর বাড়ীর পেছোনের গোরস্থানে বেলা একটার সময় দাফন করা হয়।

Comments

comments

SHARE