নাতীর আহত হওয়ার খবরে দাদার মৃত্যু ভিন্ন খাতের অপচেষ্টা

0
97

উপজেলার সীমান্তবর্তী গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুরের মান্দারতলা বাহাড়া গ্রামে একটি সংঘর্ষের ঘটনায় নাতী কাইয়ুম শরীফ(১৮) আহত হবার খবরে দাদা আব্দুর রব শরীফ(৭০) মারা যায়।গত রবিবার সংঘটিত ঘটনাটির জেরে প্রতিপক্ষকে ফাসাতে হত্যা বলে চালিয়ে দিয়ে মিথ্যা মামলায় হয়রানি করছে বলে ভুক্তভোগী আনোয়ার হোসেন ও এলাকাবাসী জানান। এলাকা সুত্রে জানা গেছে, জমি-জমা নিয়ে দীর্ঘ দিন যাবৎ গ্রামের আনোয়ার হোসেন ও প্রতিপক্ষ সরোয়ার মিয়া গ্রুপের মধ্যে শত্রুতা ও দ্বন্দ-সংঘাত চলে আসছিল । গত ২৫ জুন রবিবার দ্বন্দের জের ধরে উক্ত গ্রামের জনৈক হাজী তৈয়ব আলী মিয়ার বাড়ির সামনে বিবাদমান দু,দলের মধ্যে এক রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়। এতে উভয় দলের বেশ কয়েকজন আহত হয় । আহতদেরকে মুকসুদপুর ও ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। সংঘর্ষে সরোয়ার মিয়া গ্রুপের কাইয়ুম শরীফ (১৮)নামে জনৈক এক ব্যাক্তি আহত হয়। কাইয়ুমের আহত হবার খবরে দীর্ঘ দিন যাবৎ পক্ষাঘাতগ্রস্থ শয্যাশায়ী দাদা আব্দুর রব শরীফ হার্ট এ্যাটাকে মারা যান। মোক্ষম সুযোগ হিসাবে সরোয়ার মিয়া গংরা প্রতিপক্ষ আনোয়ার হোসেন গ্রুপের লোকদেরকে ফাঁসাতে ঘটনাটিকে প্রতিপক্ষের হাতে নিহত হয়েছে বলে চালিয়ে দেয়। পরে পুলিশ এসে লাশ উদ্বার করে। এঘটনায় মুকসুদপুর থানায় গত মঙ্গলবার (২৭ জুন) মৃত আব্দর রব শরীফের ছেলে ফারুক শরীফ বাদী হয়ে প্রতিপক্ষের ২৯ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। ভুক্তভোগিরা জানান দীর্ঘ দিন যাবৎ একজন পক্ষাঘাতগ্রস্ত রোগীর মৃত্যুর ঘটনাটিকে হত্যার ঘটনা সাজিয়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে আমাদের হয়রানী করছে এটা সত্যিই দুঃখজনক । আমরা ঘটনাটির সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে প্রকৃত ঘটনা উৎঘাটন করে মিথ্যা মামলার হয়রানী থেকে রক্ষা পেতে পুলিশ প্রশাসন, গন মাধ্যম কর্মীসহ সংশ্লিষ্ট কর্র্র্র্তৃপক্ষের নিকট জোর দাবী জানাচ্ছি।

Comments

comments

SHARE